অবশেষে নারায়ণগঞ্জ পাসপোর্ট অফিসের দুদকের টিম

নারায়ণগঞ্জের আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে হয়রানি, ঘুষ, দালালের দৌরাত্ম নতুন কথা নয়। বিভিন্ন সময়ই এমন অভিযোগ পাওয়া যায়। কর্মকর্তা-কর্মচারীদের হয়রানি, ঘুষ গ্রহণসহ বিভিন্ন অসাধু কার্যকলাপের অভিযোগ থাকলেও তাদের বিরুদ্ধে কদাচিৎ ব্যবস্থা নেওয়ার নজির দেখা যায়। তবে এবার ফেঁসে গেছেন নারায়ণগঞ্জ আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের রেকর্ড কিপার (সাময়িক বরখাস্ত) মোফাজ্জল হোসেন। তার বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগে তদন্তে নেমে প্রমাণ পেয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। তার বিরুদ্ধে দন্ডবিধি ৪২০ ও ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে। চলতি মাসের ৫ তারিখে তার বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের সিদ্ধান্ত নিয়েছে দুদক।

অভিযুক্ত মোফাজ্জল হোসেন ফরিদপুরের ভাঙ্গা থানার তারাইলের কররা গ্রামের আব্দুল আজিজ হাওলাদারের ছেলে। তিনি নারায়ণগঞ্জ আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের রেকর্ড কিপার ছিলেন। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠার পর তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। গত ৫ নভেম্বর দুদকের উপপরিচালক (অনুসন্ধান ও তদন্ত-১) তালেবুর রহমান পাসপোর্ট অফিসের এই কর্মচারীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের ও তদন্ত কর্মকর্তা নিয়োগের নির্দেশ দেন।
এই বিষয়ে কথা বলতে নারায়ণগঞ্জ আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের সহকারি পরিচালক মাহমুদুল হাসানের মুঠোফোনে একাধিকবার কল করলেও তিনি রিসিভ করেননি।