সিদ্ধিরগঞ্জে ১৪ বছরের এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণ

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে ১৪ বছরের এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মসজিদের মুয়াজ্জিনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শুক্রবার দিবাগত রাত ২টার দিকে চিটাগাংরোড এলাকা থেকে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেন সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) গৌতম তেওয়ারী।

এর আগে শুক্রবার দিবাগত রাত ১টায় অভিযুক্ত মুয়াজ্জিন মো. রফিকুল ইসলাম রবিনের (২৫) বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে ভুক্তভোগীর বাবা। গ্রেফতারকৃত আসামি নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁও থানাধীন মহজমপুর এলাকার মো. সোহরাব মিয়ার ছেলে।
 
মামলা সূত্রে জানা যায়, স্থানীয় একটি মাদ্রাসায় লেখাপড়া করে ভুক্তভোগী ওই ছাত্রী। অভিযুক্ত মো. রফিকুল ইসলাম রবিন ভুক্তভোগীর বাড়ির পাশের একটি মসজিদে মোয়াজ্জেম হিসেবে কর্মরত থাকার সুবাদে পরিচয় হয় তাদের। পরিচিতির সুবাদে প্রেমের প্রস্তাবসহ বিভিন্নধরনের কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল অভিযুক্ত। এসবে রাজি না হওয়ায় গত ৩০ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ডেমরার শুকুরশী বাজার সংলগ্ন ভূঁইয়া বাড়ি মোড়ের সামনে থেকে মাদ্রাসার দিকের যাওয়ার কথা বলে রিকশায় উঠে। পরে সিদ্ধিরগঞ্জের পরিত্যক্ত ফাঁকা জায়গায় নিয়ে তাকে ধর্ষণ করে রবিন। ঘটনার দু’দিন পর (১ জানুয়ারি) ভুক্তভোগী ঐ ছাত্রী তার মাদ্রাসা শিক্ষিকাকে ঘটনাটি জানালে মাদ্রাসা শিক্ষিকা ভুক্তভোগীর পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করেন।
 
এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শরীফ আহমেদ জানান, অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে আদলতে পাঠানো হয়েছে এবং ভুক্তভোগীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য  হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।