ভাড়াটিয়া নারীর শ্লীতাহানি করার অভিযোগে বাড়িওয়ালা গ্রেফতার

সদর উপজেলার ফতুল্লায় কু প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় এক ভাড়াটিয়া নারীর শ্লীতাহানি করার অভিযোগে বাড়িওয়ালা শিপু মন্ডল (৪০) কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার দুপুরে তাকে নিজ বাড়ী থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত শিপু মন্ডল ফতুল্লা মডেল থানার পশ্চিম দেওভোগ আদর্শ নগরের মৃত প্রাণতোষ মন্ডলের পুত্র।

ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার (৫ মে) দিবাগত রাত তিনটায় ফতুল্লা থানার পশ্চিম দেওভোগ আদর্শ নগর এলাকায়। এ ঘটনায় ঘটনাট শিকার নারী বাদী হয়ে বাড়ীওয়ালার বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ এনে মঙ্গলবার সকালে ফতুল্লা মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন ।

ঘটনার বিবরনীতে জানা যায়, বাদী একজন গার্মেন্টস শ্রমিক। তার স্বামী একজন রাজ মিস্ত্রী।তারা বিগত ছয় বছর ধরে গ্রেফতারকৃতের বাসায় স্ব- পরিবারে ভাড়ায় বসবাস করে আসছে। গ্রেফতারকৃত শিপু মন্ডল গত এক থেকে দেড় মাস ধরে প্রায় সময় তার স্বামীর উপস্থিতি এবং অনুপস্থিতে তাদের ঘরে গিয়ে নানা বিষয়ে কথাবার্তা বলতো। এক পর্যায়ে তার স্বামীর অনুপস্থিতিতে তাকে বাড়িওয়ালা কু প্রস্তাব দেয়।তিনি তা প্রত্যাখান করে বিষয়টি তার স্বামীকে অবগত করে। পরবর্তীতে তারা আলোচনা করে আগামী মাসে অনত্র বাসা ছেড়ে চলে যাবার সীর্দ্ধান্ত গ্রহন করলে চলতি মাসে তা বাড়ীওয়ালাকে জানিয়ে দেয়।

এ পর্যায়ে তার স্বামী ৫ তারিখ বুধবার কাজের জন্য ঢাকায় অবস্থান করলে দিবাগত রাত তিনটার দিকে তিনি সেহেরী খাওয়ার জন্য ঘুম থেকে উঠে হাত- মুখ দুয়ে সেহেরী খেতে বসলে লম্পট বাড়িওয়ালা তার ঘরে প্রবেশ করে ভিতর থেকে দরজা লাগিয়ে দিয়ে তাকে জাপটে ধরে এবং ডাক-চিৎকার না করার জন্য হুমকী প্রদান করে শরীরের বিভিন্ন স্পর্শকাতর স্থানে হাত বুলাতে শুরু করে।তিনি তখন ডাক-চিৎকার করলে পার্শ্ববর্তী ভাড়াটিয়ারা এগিয়ে এলে তিনি ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ফতুল্লা মডেল থানার ইমানুর জানান,বাদীর দায়েরকৃত মামলার একমাত্র আসামী শিপু মন্ডল কে মঙ্গলবার বেলা সাড়ে বারোটার দিকে পশ্চিম দেওভোগস্থ আদর্শ নগর নিজ বাড়ী থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।