স্বাধীন সহ পাঁচ ভাইয়ের নিয়ন্তণে মাদক ব্যবসা কি নেই এই পরিবারে এলাকাবাসী অতিষ্ঠ

ষ্টাফ রিপোটার ঃ

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়নের নয়ামাটি ভাবির বাজার এলাকায় পাঁচ ভাইয়ের নিয়ন্তণে মাদক ব্যবসা এক ভাই গ্যাং লিডার । এদের পরিবারের অত্যাচারে অতিষ্ঠ এলাকাবাসি , কি নেই এই পরিবারে নয়ামাটি ভাবির বাজার এলাকার মৃত রাজ্জাক ভাঙ্গারীর গুনোর ধর পাঁচ ছেলে এলাকায় এক মাদক ,সন্ত্রাস ,চাঁদাবাজী সহ গ্যাং বাহিনী দিয়ে এলাকায় রাজত্ব কায়েম করছেন । এদের প্রত্যকটি ভাই এলাকার এক একটি ভাইরাস ,ভাবির বাজার এলাকায় এদের পরিবারে খবর নিয়ে জানা যায় টোকাই থেকে হিরো বনে যাওয়া এক পরিবারে লোমহশ্য ময় কাহিনী । মাদক বেঁচে রাতারাতি আঙ্গুল ফুলে কলা গাছ হওয়া মত অবস্থা । এলাকায় টাকার গরমে ও ফতুল্লা থানা আওয়ামীলীগে এক শীর্ষ নেতার ছত্রছায়ায় একের পর এক সন্ত্রাসীর তান্ডব চালাচ্ছে এই পাঁচ ভাই । পাঁচ ভাই এর মধ্যে তিন ভাই প্রথমে আদি বাবার ব্যবসা ভাঙ্গারী দোকানের সাথে জড়িত ছিলো ,কথায় আছে সুখে থাকলে ভুতে কিলায় চলে আসলো ভাঙ্গারী ব্যবসার আরালে চোরা মালামাল কিণা থেকে শুরু করে চোর ,ছিনতাইকার পালা । বেশ কয়েকদিন এই ব্যবসা করার পর এলাকার মানুষ যেনে যাওয়া চলে আসলো মাদক ব্যবসায় , হিরোইন ,ইয়াবা , এমনকি গাঁজা সহ খুলে গেল কপাল ,এখন দুই ভাই এক ভাই মুরগির দোকান ও আরেক ভাইয়ের মুদি দোকানের আড়ালে চলছে দিব্বি মাদক ব্যবসা । ছোট ভাই স্বাধীন ওরফে টোকাই স্বাধীন যার রয়েছে কিশোর গ্যাং বাহিনী । স্বাধীনের বিরুদ্ধে ধর্ষন ,মারামারি সহ প্রায় ২০ টি রো বেশি অভিযোগ রয়েছে ফতুল্লা মডেল থানায় ।তবে কোন অদৃশ্য ক্ষমতার বলে স্বাধীন ও তার ভাইয়েরা গ্রেফতার করছে না পুলিশ তা নিয়ে আলোচনা সমোলচনা চলছে এলাকায় , গত এক সপ্তায় বেশ কয়েটি আলোচিত ঘটনা ঘটিয়েছেন এই স্বাধীন ও তার বাহিনী , প্রকাশ্য রামদা হাতে স্বাধীনের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যেমে ছরিয়ে পরলেও এখনো কোন ব্যবস্থা নেয় নি পুলিশ , তাছাড়া এলাকায় বেশ কয়েটি বাড়ি ঘড়ে চালিয়েছে সন্ত্রাসী তান্ডব , পুলিশ পুসার মহোদয় ও র‌্যাবের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন এলাকাবাসী ।