সন্ত্রাস বিরোধি আলোচনা সভা মঞ্চে শীর্ষ সন্ত্রাসী মিরু ,সভাকে হাস্যকর বলে মনে করছেন সাধারন মানুষ

ষ্টাফ রিপোটার ঃ
কুতুবপুরে পশ্চিম শাহীমহল্লা আকনগলি পঞ্চায়েত কমিটির উদ্দ্যেগে কুতুবপুরের শীর্ষ সন্ত্রাসী ল্যাড়া মীরুকে নিয়ে মাদক সন্ত্রাস বিরোধি আলোচনা সভার আয়োজন করা হয় । আজ ৪ সেপ্টেম্বর বিকেল ৩ টায় উক্ত পঞ্চায়েত কমিটির সভাপতি আঃ রহমানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে থাকার কথা ছিলেন ফতুল্লা থানার ওসি মোঃ রকিবুজ্জামান ,তবে বিশেষ কারনে তিনি অনুষ্ঠানে আসতে না পাড়ায় ওনি ফতুল্লা মডেল থানার ওসি অপারেশন মোঃ শহিদুল ইসলাম খান কে পাঠান ।

অনুষ্ঠানে নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামীলীগের নেতা সহ ফতুল্লা থানা ও কুতুবপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের অনেক নেতারাই উপস্থিত ছিলেন । যেখানে মাদক ,সন্ত্রাসী এর বিরুদ্ধে আলোচনা সভা সেখানে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশের তালিকায় থাকা একজন শীষ সন্ত্রাসীকে মঞ্চে রেখে প্রসাশনের একাধিক লোকের অনুষ্ঠান এটা আসলেই নেক্কার জনক বলে মনে করছেন সাধারন মানুষ , হত্যা, অস্ত্র, চাঁদাবাজী সহ প্রায় ২০ টিও বেশি মামলা রয়েছে এই শীর্ষ সন্ত্রাসী মিরুর বিরুদ্ধে ,তাছাড়া প্রায় শতাধিক অভিযোগ ও জিডি রয়েছে এই শীর্ষ সন্ত্রাসী ল্যাংড়া মিরুর বিরুদ্ধে ।

নারায়ণগঞ্জ সহ ভিবিন্ন পত্রিকায় ও অনলাইনে নিউজ পোটালে বরাবরি আলোচনায় রয়েছেন এই মিরু, কি নেই এই মিরু বাহিনীতে কিশোর গ্যাং , মাদক ,জমিদখল ,চাঁদাবাজী সহ নানা অপকম এর হোতা এই ল্যাংড়া মিরু ,নিজে হুইল চেয়ারে বসে অপরাধ জগত নিয়ন্তণ করেন ল্যাংড়া মিরু ।

ল্যাংড়া মিরুর বাবা একজন লেবার সরদার ছিলেন মিরু ছিলেন ডাকাত সরদার , ডাকাতির টাকা টাকা ভাগাভাগি নিয়ে নিজের সহকমীদের গুলির শিকার হন ল্যাংড়া মিরু , আর তার পর ভাগ্য খুলে যায় এই ল্যাংড়া মিরুর , হয়ে যায় রাতারাতি অপরাধ জগতের গডফাদার ,মাদক ,সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজী ,ভূমিদস্যতা করে বেশ ১৫ থেকে ১৬ কোটি টাকার মালিক এখন এই ল্যাংড়া মিরু ।

রয়েছে বেশ কয়েকটি বাড়ি সহ খালি জায়গাও । নতুন করেন নিজের অপরাধ জগর সাজাতে ধরেছে নতুন কৌশল , আর এজন্য নিজের ঘায়ের সাথে লাগিয়েছেন ঐক্যর ডাক ,কুতুবপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের অনেক নেতাকেই নিয়েছেন নিজের দলে ।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকা ফতুল্লা মডেল থানার ও্সি অপারেশন মোঃ শহিদুল ইসলাম কে এবিষয় জানতে তার ব্যবহারিত ফোনে কল করলে তিনি জানান আমি নতুন এই থানায় কে বা কাহারা মঞ্চে ছিলেন আমার জানা নেই ।