অনলাইনে পাঠদান কার্যক্রম চালুর মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে অনলাইনে ডিজিটাল ক্লাস

চট্টগ্রামের পটিয়ায় চারটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে অনলাইনে পাঠদান কার্যক্রম চালুর মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে অনলাইনে ডিজিটাল ক্লাস।

রোববার (১৬ আগস্ট) পটিয়া উপজেলায় অনলাইনে পাঠদান কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন।

উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে পটিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফারহানা জাহান উপমার সভাপতিত্বে অনলাইনে পাঠদান উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যুক্ত হন চট্টগ্রামের ১৪ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তারা । প্রথম দিনে পটিয়ার চারটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৪ হাজার ২১৩ জন শিক্ষার্থী অনলাইনে ক্লাস শুরু করে।
বিদ্যালয়গুলো হলো- পটিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়, চরকানাই বহুমুখি উচ্চ বিদ্যালয়, মনসা স্কুল এন্ড কলেজ এবং শাহচাঁন্দ আউলিয়া আলীয়া কামিল মাদ্রাসা।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন বলেন, বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে দীর্ধদিন ধরে বন্ধ রয়েছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। ফলে ছন্দপতন ঘটেছে শিক্ষার্থীদের পাঠদানে। একাডেমিক কার্যক্রম ছাড়াই চলে যাচ্ছে শিক্ষাজীবনের গুরুত্বপূর্ণ সময়টুকু। এ সময়ে চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলা প্রশাসন মাধ্যমিক শিক্ষার্থীদের এই ক্ষতি পূরণে একটি প্রশংসনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। আশা করি এ উদ্যোগের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা উপকৃত হবে।

সভাপতির বক্তব্যে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফারহানা জাহান উপমা বলেন, করোনাভাইরাস সামগ্রিক ক্ষেত্রে চরম আকারে নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে। এই সময়ে শিক্ষার্থীদের অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে যাচ্ছে, চলে যাচ্ছে শিক্ষার্থীদের পাঠ্যজীবনের গুরুত্বপূর্ণ সময়। তাই তাদের এ ক্ষতিপূরণে ‘ঘরে শিখি’ নামে অনলাইন ক্লাসের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ক্লাসগুলো থাকবে রেকর্ডেড। যা পরবর্তীতে শিক্ষার্থীরা দেখতে পারবে।

জানা গেছে, পটিয়া উপজেলার ৪৭টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রায় ৩৪ হাজার শিক্ষার্থী অধ্যয়নরত আছে। মাধ্যমিক পর্যায়ের সব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের একটি প্ল্যাটফরমে এনে অভিন্ন প্যানেলে অনলাইন শ্রেণি কার্যক্রম ‘ঘরে শিখি’র মাধ্যমে ক্লাস নেওয়া হচ্ছে। পটিয়া উপজেলা ও চট্টগ্রাম মহানগরের মাধ্যমিক পর্যায়ের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অভিজ্ঞ শিক্ষকরা এ কার্যক্রমে পাঠদান দিচ্ছেন। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস এ কার্যক্রমে সহযোগিতা করছে।

উল্লেখ্য, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন কম্পিউটার ইনস্টিটিউটের পরিচালক আনিছ আহমদের তত্ত্বাবধানে তিন তরুণ আশরাফ রেজা, নুর উদ্দিন ও মো. হায়দার ভিন্নধর্মী এ সফটওয়্যারটি উদ্ভাবন করেন। এখন www.eduworlderp.com এ যুক্ত হয়ে অনলাইনে পাঠদান কার্যক্রম পরিচালনা করা যাবে।