হিমেলের বিরুদ্ধে হত্যা করে লাশ শীতলক্ষ্যায় ভাসিয়ে দেওয়ার হুমকির

নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি শাহরিয়ার রেজা হিমেলের বিরুদ্ধে আবারও অভিযোগ। এবার হিমেলসহ তার বাবা ও দুই চাচার বিরুদ্ধে হত্যা করে লাশ শীতলক্ষ্যায় ভাসিয়ে দেওয়ার হুমকির অভিযোগ করেছেন এক ব্যবসায়ী।

মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর) সকালে কাফনের কাপড় পরে জেলা প্রশাসক (ডিসি) ও জেলা পুলিশ সুপারের (এসপি) কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন করেছেন ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী ও তার পরিবারের লোকজন। ডিসি-এসপির কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়ে অভিযুক্তদের শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তারা।

লিখিত অভিযোগে ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম (৫২) বলেন, সস্তাপুরের লাল চান মিয়ার ছেলে শাহজালাল ও শাহজাহান তার সস্তাপুর মধ্যপাড়া এলাকার জমি দখল করতে চায়। এই জন্য তারা বিভিন্ন সময়ে হুমকি দিচ্ছে। গত ৮ অক্টোবর শাহজালালের ছেলে ছাত্রলীগ নেতা শাহরিয়ার রেজা হিমেল, চাচা যুবলীগ নেতা মজিবর রহমান ও জুয়েলসহ ২০/২৫ জন অস্ত্রসহ দেশীয় দা, চাপাতি, ছুরি, হকিস্টিক, লোহার রড নিয়ে তার কাছে ৫০ লাখ
টাকা চাঁদা দাবি করে। মালিকানাধীন বাড়ি থেকে উৎখাতের হুমকি দেয়। একই সাথে তাকে ও তার পরিবারের সকল সদস্যদের হত্যা করে লাশ শীতলক্ষ্যা নদীতে ভাসিয়ে দেয়ার হুমকি দেয় বলে অভিযোগ ওই ব্যবসায়ীর।

নজরুল ইসলাম বলেন, ‘ছাত্রলীগ নেতা হিমেলের পুরো পরিবার সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের সাথে জড়িত। অস্ত্র নিয়ে আমার বাড়িতে ঢুকে হিমেল ও তার বাপ-চাচা আমাকে হুমকি-ধমকি দেয়। এক যুগ যাবৎ তারা আমার তিনটা বাড়ি দখল করে রাখছে তারা। এখন যেই বাড়িটাতে থাকতেছি সেইটাও দখলের পায়তারা করতাছে। তাদের এই দখলদারিত্বের জন্য বাধ্য হয়ে কাতার থেকে চলে আসতে হয়েছে।’

বিগত সময়ে একাধিকবার পুলিশের কাছে অভিযোগ জানিয়েও কোন লাভ হয়নি’ দাবি করে ভুক্তভোগী ওই ব্যবসায়ী বলেন, ‘আমি কাফনের পইড়া নামতে বাধ্য হইছি। আমার হারানোর আর কিছু নাই।’ মানববন্ধনে স্বামীর সাথে কাফনের কাপড় পড়ে উপস্থিত ছিলেন স্ত্রী নাজমা আক্তার।

এর আগে গত ৪ অক্টোবর মারধরের পর ‘মিথ্যা মামলা’ দিয়ে হয়রানির অভিযোগ করে হিমেল ও তার চাচা যুবলীগ নেতা মজিবুর রহমানের বিরুদ্ধে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন করে সস্তাপুর এলাকার রিকশার গ্যারেজ মালিকের পরিবার।